Previous
Next

সর্বশেষ

30 September 2019

আট বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় বাহিনী বিএসএফ

আট বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় বাহিনী বিএসএফ


ডেস্ক রিপোর্ট।। ভারতে কথিত প্রবেশের চেষ্টার অভিযোগে সিমান্ত থেকে বাংলাদেশিকে ধরে নিয়ে গেছে ভারতীয় সিমান্ত বাহিনী বিএসএফ।

অন্যদিকে ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সন্ধায় পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলার গাইঘাটা থানার গোবরাপাড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করে ৬৪ নম্বর বেটেলিয়ানের জওয়ানরা।

পরে তাদের গাইঘাটা থানা পুলিশের হাতে তুল দেয় বিএসএফ। তাদের মধ্যে ৫ জন নারী ও ৩ জন পুরুষ রয়েছে। শুক্রবার সকালে তাদের বনগাঁ মহকুমা আদালতে পাঠায় পুলিশ।
বক্তব্য শেষে রাবি উপাচার্যের দেয়া ‘জয় হিন্দ’ স্লোগান আমাদের কিসের বার্তা দিচ্ছে!

বক্তব্য শেষে রাবি উপাচার্যের দেয়া ‘জয় হিন্দ’ স্লোগান আমাদের কিসের বার্তা দিচ্ছে!


স্টাফ রিপোর্টার।। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্যের শেষে জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধুস্লোগানের পর জয় হিন্দস্লোগান দিয়েছেন উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান! একজন স্বাধীন দেশের নাগরিক হয়ে অন্য দেশের স্লোগান দেয়ার বিষয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

গত ২৬ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমেদ সিনেট ভবনে যৌথভাবে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে রাবি উপাচার্য জয় হিন্দস্লোগান দেন বলে অনুষ্ঠানে উপস্থিত একাধিক শিক্ষক নিশ্চিত করেছেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মণিষা দে। সে বলে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান স্যার তার বক্তব্যের শেষ দিকে জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধুবলার পর জয় হিন্দস্লোগান দিয়ে বক্তব্য শেষ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষকরা বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে অন্য একটি দেশের স্লোগান দেয়ার যৌক্তিকতা নেই। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে খাটো করে দেখা হয়। একটি দেশের অভ্যন্তরীণ একটি অনুষ্ঠানে অন্য একটি দেশের স্লোগান দেয়াকে রাষ্ট্র বিরুদ্ধাচরণ বলেও মনে করছেন তারা।

অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ইলিয়াস হোসেন বলেন, একজন দায়িত্বশীল ব্যক্তি হয়ে তিনি কখনও এ ধরনের স্লোগান দিতে পারেন না। জয় হিন্দহচ্ছে অখণ্ড ভারতের একটি স্লোগান। বাংলাদেশ একটি স্বাধীন সার্বভোম রাষ্ট্র। সেদিক থেকে অখণ্ড ভারতের স্লোগান দেয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বকে খাটো করা হয় বলে দাবি করেন তিনি।

ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইতিহাস বিভাগের কয়েকজন শিক্ষক। নাম প্রকাশ না করার শর্তে তারা বলেন, একটি দেশের অভ্যন্তরীণ অনুষ্ঠানে অন্য একটি দেশের স্লোগান দেয়া রাষ্ট্রবিরোধী আচরণ। একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে থেকে এ ধরনের স্লোগান দেয়ার মাধ্যমে ভারতের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করা হয় এবং দেশ কে ভারতের অঙ্গরাজ্য বলে মনে করা হয়, যা কোনোভাবে কাম্য নয়।

29 September 2019

ব্যক্তিগত বিবাদের কারণে পতিপক্ষের গুলিতে সৌদি বাদশাহ সালমানের দেহরক্ষী নিহত

ব্যক্তিগত বিবাদের কারণে পতিপক্ষের গুলিতে সৌদি বাদশাহ সালমানের দেহরক্ষী নিহত


আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজের দেহরক্ষী মেজর জেনারেল আব্দুল আজিজ আল ফাঘাম গুলিতে নিহত হয়েছেন। ব্যক্তিগত বিবাদের কারণে তিনি নিহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

গতকাল জেদ্দায় তার বন্ধুর বাসায় বেড়াতে গিয়েছিলেন ফাঘাম। সেখানেই তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। সৌদি পুলিশ এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, আব্দুল আজিজ আল ফাঘাম জেদ্দাতে নিহত হয়েছেন। তিনি তার বন্ধু তুর্কি আল সাবতির বাসা বেড়াতে গিয়েছিলেন। সে সময় ওই বাসায় মামদৌহ বিন মিশাল আল আলি নামের এক ব্যক্তিও বেড়াতে আসেন। একপর্যায়ে আল আলি ও আল ফাঘাম কথাবার্তার  তর্কে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় আল আলি পিস্তল দিয়ে আল ফাঘামকে গুলি করেন। দুজনের মধ্যে ব্যক্তিগত ও অর্থনৈতিক বিষয় নিয়ে তর্কবিতর্ক হয়েছিল বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, কিছুক্ষণের মধ্যে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে আল আলি পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়ে। এ সময় পুলিশ পাল্টা গুলি ছুঁড়লে আল আলি নিহত হন। পরে আল ফাঘামকে হাসপাতালে নেয়া হলে তার মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় তুর্কি আল সাবতি ও তার এক ফিলিপিনো কর্মচারীসহ পাঁচ নিরাপত্তা কর্মকর্তা আহত হন। সূত্রঃ খালিজ টাইমস, আল-আরাবিয়া।
গাজায় ফিলিস্তিনি যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসী ইসরায়েলি হানাদার বাহিনী

গাজায় ফিলিস্তিনি যুবককে গুলি করে হত্যা করেছে সন্ত্রাসী ইসরায়েলি হানাদার বাহিনী


আন্তর্জাতিক ডেস্ক।। ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় এক ফিলিস্তিনি নাগরিককে গুলি করে নির্মমভাবে হত্যা করেছে ইসরায়েলি পুলিশ। এ হামলায় অন্তত ৬৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। যাদের মধ্যে কমপক্ষে ৩২ জনের ওপর সরাসরি গুলি লাগায় হামলায় আরও বেশ কিছু লোকের মৃত্যু হতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

শনিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) স্থানীয় সময় বিকালে রাফায় ইহুদিবাদী দখলদার এই রাষ্ট্রটির বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনে আচমকা গুলি বর্ষণ শুরু করে ইসরায়েলের নিরাপত্তা বাহিনী।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, এবারের হামলায় সাহির ইভাদুল্লাহ নামে ২০ বছর বয়সী এক ফিলিস্তিনি তরুণের করুণ মৃত্যু হয়। তাছাড়া আন্দোলনে অন্তত ৬৩ জন গুরুতর আহত হয়েছে। যাদের মধ্যে কমপক্ষে ৩২ জনের ওপর সরাসরি গুলি চালানো হয়।

ফিলিস্তিনি এক কর্মকর্তার দাবি, ইসরায়েলি আগ্রাসনে প্রাণ হারানো তরুণের লাশ এরই মধ্যে উদ্ধার করা হয়েছে। তাছাড়া সকল হতাহতকে চিকিৎসার জন্য ইতোমধ্যে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে অনেকের শরীরে গুলি লাগায় হামলায় আরও বেশ কিছু লোকের মৃত্যু হতে পারে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।
ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি মারাত্মক আহত

ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি মারাত্মক আহত


স্টাফ রিপোর্টার।। ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বেউরঝাড়ী সীমান্ত এলাকায় এক বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ীকে গুলি করে আহত করেছে ভারতীয় সীমান্ত বাহিনী বিএসএফ। শনিবার দিবাগত রাতে (২টা) ভারতের গোয়ালপুকুর বড়বিল্লাহ সীমান্ত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত মুহম্মদ দুলাল বালিয়াডাঙ্গী আমজানখোর ইউনিয়নের চুড়ইগাদি গ্রামের মুহম্মদ সরবাতুর ছেলে এবং একই ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মুহম্মদ আকালু ডোঙ্গার ভাইয়ের ছেলে (ভাতিজা)।

ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির ভারপ্রাপ্ত কোয়াটার মাস্টার সহকারী পরিচালক মুহম্মদ রাজ মামুদ আহতের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। তিনি জানান, শনিবার রাতে দুলালসহ আরো বেশ কয়েকজন ব্যবসায়ী গরু আনার উদ্দেশ্যে অবৈধভাবে ভারতের অভ্যন্তরে গোয়ালপুকুর বড়বিল্লাহ সীমান্তের ৩৭৯/এস নম্বর পিলার অতিক্রম করে।

এ সময় ভারতীয় বিএসএফ তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে ও ধাওয়া দেয়। ব্যবসায়ীরা যে যার মতো করে পালিয়ে বাংলাদেশে ফেরত আসে। রবিবার সকালে দুলালের পরিবার ও প্রতিবেশীরা বিএসএফের গুলিতে আহত হওয়ার কথা জানায়। আহত দুলালকে পরিবারের লোকজন রংপুরে চিকিৎসার জন্য নিয়ে গেছেন বলে জানান স্থানীয়রা। ঘটনায় প্রকৃত কারণ জানতে বিজিবি ও বিএসএফ ক্যাম্প কমান্ডার পর্যায়ে পতাকা বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে।