Previous
Next

সর্বশেষ

23 March 2019

খুলে দেয়া হলো নিউজিল্যান্ডের আল-নুর মসজিদ

খুলে দেয়া হলো নিউজিল্যান্ডের আল-নুর মসজিদ


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভয়াবহ নৃশংসতার আটদিন পর খুলে দেয়া হলো, নিউজিল্যান্ডের আল-নুর মসজিদ। স্থানীয় দৈনিক নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

গত ১৫ মার্চ হওয়া বন্দুক হামলার পর থেকে হামলার শিকার আল-নূর মসজিদ ও লিনউড মসজিদ তদন্তের স্বার্থে বন্ধ রেখেছিল পুলিশ।

খবরে বলা তারা জানায়, ফজরের নামাজ আদায় করেন ৬ জন। এ সময় বাইরে অনেকেই জড়ো হন। এর আগে, ভাঙা জানালা মেরামত ও রক্তের দাগ মুছে নতুন করে রং করা হয় মসজিদের। চত্বরে লাগানো হয়, গোলাপ ফুলের চারা।

তবে, বেশ কয়েকটি কক্ষ এখনও বন্ধ রয়েছে।
এদিকে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্নকে নোবেল দেয়ার দাবিতে অনলাইনে শুরু হয়েছে পিটিশন।

স্বঘোষিত শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী ২৮ বছর বয়সী ব্রেনটন ট্যারান্ট ক্রাইস্টচার্চের আল নূর এবং লিনউড মসজিদে নামাজরত মুসল্লিদের ওপর অতর্কিতে বন্দুক হামলা চালান। ওই হামলায় ৫০ জন নিহত হন। আহত হন আরো অন্তত ৪৭ জন।
মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয়,সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে প্রশ্রয়ও দেয় নাঃ ব্যানার হাতে তরুণী

মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয়,সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে প্রশ্রয়ও দেয় নাঃ ব্যানার হাতে তরুণী

ছবিঃ সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ মুসলমানরা সন্ত্রাসী নয়, এমনকি সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে প্রশ্রয়ও দেয় না। নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার পর ব্যানার হাতে এই বার্তাই দিচ্ছেন এক তরুণী।

গত শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে হামলায় অর্ধশত মুসল্লি নিহত হন। সেই মসজিদেই জুমার নামাজ আদায় করতে যাচ্ছিলেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। কিন্তু অল্পের জন্য সন্ত্রাসী হামলা থেকে প্রাণে বেঁচে যান টাইগাররা।

যেভাবে বেঁচে যান টাইগার ক্রিকেটাররা
ওই দিন অনুশীলন শেষ করে পবিত্র জুমার নামাজ আদায় করতে হাগলি ওভাল স্টেডিয়াম সংলগ্ন পবিত্র মসজিদ আল নুরে যাচ্ছিলেন বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়রা। পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী স্থানীয় সময় দুপুর দেড়টায় পবিত্র মসজিদে থাকার কথা ছিল বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। কিন্তু ম্যাচের আগের দিন আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে পাঁচ-ছয় মিনিট সময় বেশি ব্যয় করে ফেলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আর এই পাঁচ মিনিটই যেনো বাঁচিয়ে দিয়েছে পুরো বাংলাদেশ দলকে। কেননা পাঁচ মিনিট আগে সংবাদ সম্মেলন শেষ করলে হয়তো পবিত্র মসজিদে আগেই যাওয়া হতো।

কিন্তু সংবাদ সম্মেলনে বেশি সময় লেগে যাওয়ায় পবিত্র মসজিদে পৌঁছতে প্রায় ১টা ৪০ মিনিট হয়ে যায়। আর এতেই যেনো বেঁচে যান তামিম, মুশফিক, তাইজুল, মিরাজরা। নির্ধারিত সময়ের চেয়ে ‘দেরি’ হয়ে যাওয়ায় বাস থেকে নেমেই তড়িঘড়ি করে পবিত্র মসজিদের পথে পা বাড়ান মুশফিক- তামিমরা। পথিমধ্যে তাদের আটকে দেন বাসের পাশেই গাড়িতে থাকা আহত এক নারী। তিনি মুশফিক-তামিমদের বারণ করেন সামনের দিকে যেতে।

ওই নারীই জানান, ওই পবিত্র মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে আর আশপাশের অনেকেই গুলিবিদ্ধ। এমন দুঃসংবাদে ক্রিকেটাররা প্রথমে নিজেদের টিম বাসে অবস্থান নিলেও ওই জায়গায় কোনো নিরাপত্তা কর্মী বা নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় কাউকে দেখতে পাননি।

তাই উপস্থিত বুদ্ধিতে বাস থেকে হাগলি পার্কের মধ্য দিয়ে আবার মাঠে ফিরে আসেন সবাই। প্রাণে বেঁচে যান বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা।

পরে স্টেডিয়ামের ড্রেসিংরুমে কিছুক্ষণ অবস্থান করে সবাই মিলে চলে যান টিম হোটেলে। সেখানে আগেই ছিলেন দলের কোচিং স্টাফরা।

এমন ভয়াবহ ঘটনার বর্ণনা দিয়ে ইতিমধ্যে তামিম ইকবাল নিজের টুইটার একাউন্টে লিখেছেন, ‘পুরো দল গোলাগুলির হাত থেকে বেঁচে গেলো। খুবই ভয়াবহ অভিজ্ঞতা, সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

বাংলাদেশ দলের অন্যতম নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম তার টুইটে বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ্‌! ক্রাইস্টচার্চে হামলার ঘটনা থেকে আল্লাহ্‌ আজ আমাদের বাঁচিয়ে দিলেন। আমরা অনেক বেশি ভাগ্যবান। কখনোই এমন ঘটনার সম্মুখীন হতে চাই না। আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’
ভারতে ঘরে ঢুকে মুসলিম পরিবারকে নির্যাতন (ভিডিওসহ)

ভারতে ঘরে ঢুকে মুসলিম পরিবারকে নির্যাতন (ভিডিওসহ)

ছবিঃ সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ভারতের গুরগাঁওয়ে ঘরে ঢুকে মুসলিম পরিবারের ওপর নির্যাতনে ভিডিও প্রকাশ হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) বিকাল ৫টার দিকে গুরগাঁওয়ের ভূপ সিংহ নামক এলাকায় এক মুসলিম পরিবারের সদস্যরা এমন সন্ত্রাসবাদের শিকার হয়। খবর এনডিটিভির।

ওই মুসলিম পরিবারের ওপর সন্ত্রাসীদের অত্যাচারের ভিডিও ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন দেশটির নেট জনতা। ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দ্রুত বিচারের দাবি জানান দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

ভাইরাল ওই ভিডিওতে দেখা গেছে, প্রায় ৪০ জনের একটি দল এসে লোহার রড এবং হকি স্টিক দিয়ে পরিবারের পুরুষ সদস্যদের বেধড়ক পেটাচ্ছে। এসময় তাদেরকে না পেটাতে অনুরোধ জানান পরিবারের নারী সদস্যরা।

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, হোলির দিন ক্রিকেট খেলা নিয়ে তৈরি হওয়া বাক-বিতন্ডার জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। কট্টরপন্থী হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের মদতে এ নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে দাবী জানিয়েছে ভুক্তভোগী পরিবার।

মারধরের সময় দুষ্কৃতিকারীরা 'পাকিস্তানে যা' বলে হুমকি দিচ্ছিল বলে জানান তারা। গুরগাঁও পুলিশ জানিয়েছে, এ হামলা পরিকল্পিত। ঘটনাস্থলে আমরা পৌঁছার পূর্বেই দুষ্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়।

তবে অভিযোগের ভিত্তিতে এখন পর্যন্ত ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানায় গুরগাঁও পুলিশ। ভিডিও ফুটেজ দেখে বাকিদের খোঁজ করা হচ্ছে। গুরগাঁওয়ের এসিপি শামসের সিংহ বলেন, ‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে। আক্রান্তেরা সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের। তারা বাড়ির বাইরে ক্রিকেট খেলার সময়ই এই ঘটনা ঘটেছে। অভিযুক্তদের সনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।’ সম্প্রতি বিশ্বজুড়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের ওপর বর্ণবাদীদের হামলা ও অত্যাচার বেশ পরিলক্ষিত। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে শ্বেতাঙ্গ বর্ণবাদী হামলা ঘটনার বিশ্ব স্তব্ধ। সে হামলার লাইভ ভিডিওচিত্র ফেসবুকে প্রকাশ করে উগ্রপন্থী হামলাকারী ব্রেনটন টেরেন্ট।

সেই রেশ কাটতে না কাটতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় আবারও এমন ভিডিও প্রকাশ পেল।

প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসুর আজীবন সদস্য করার প্রস্তাবঃ আপত্তি ভিপি নুরের

প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসুর আজীবন সদস্য করার প্রস্তাবঃ আপত্তি ভিপি নুরের

ফাইল ছবি
স্বদেশবার্তা ডেস্কঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) আজীবন সদস্য করার প্রস্তাবে আপত্তি জানিয়েছেন নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুর। তার সাথে একমত পোষণ করেন সমাজসেবা সম্পাদক আখতার হোসেনও।

২৮ বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) নবনির্বাচিত কমিটির প্রথম কার্যকরী সভা আজ শনিবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। ডাকসুর সভাকক্ষে বেলা ১১টায় শুরু হয়ে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত চলে এই সভা।

সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতায় ২৮ বছর পর ডাকসু নির্বাচন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসুর আজীবন সদস্য করার দাবি জানান ডাকসুর সাধারণ সম্পাদক (জিএস) ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।

এই দাবির বিরোধিতা করেন কোটা সংস্কার আন্দোলন নেতা ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুর। তিনি বলেন, ‘যেহেতু এই নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ এবং বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা নির্বাচন বর্জন করেছেন, সেহেতু এ রকম প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রীকে সদস্য করার জন্য আপত্তি জানাই।’

সভায় পুনরায় ডাকসু নির্বাচনের দাবি জানিয়ে নুর বলেন, যদি পুনরায় নির্বাচন হয় এবং সেই নির্বাচন সুষ্ঠু হয় তাহলে প্রধানমন্ত্রীকে আজীবন সদস্য করার ব্যাপারে প্রস্তাব দেয়া যাবে।

সভায় গেস্টরুম ও গণরুম বন্ধ করার ব্যাপারেও কথা বলেন ভিপি নুর। এ ছাড়া একটা নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের ছত্রছায়ায় হলে উঠার বিরোধিতাও করেন তিনি। তবে এসব ব্যাপারে কথা বলেনি ছাত্রলীগ।

সভায় ক্যাম্পাসে রিকশা ও সাইকেলের জন্য আলাদা লেন করার দাবি জানানো হয়। এ ছাড়া নির্দিষ্ট রিকশাভাড়ার ব্যবস্থা করা ও যান চলাচল নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারেও আলোচনা হয়। এসব ব্যাপারে উপস্থিত সবাই একমত প্রকাশ করেন।

কর্যকরী সভা শেষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামান বলেন, ‘এই কার্যকরী সভায় প্রতিনিধিদের মধ্যে গণতন্ত্রের চর্চা হয়েছে। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এটি গণতন্ত্রের একটি শুভ সূচনা।’

প্রধানমন্ত্রীকে ডাকসুর আজীবন সদস্য করার প্রস্তাবের ব্যাপারে ভিসি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে আজীবন সদস্য করার ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। তবে পরের কার্যকরী সভায় আমরা এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব।’

এদিকে আজ ডাকসুর পুনর্নির্বাচনের দাবিতে ছাত্রদলসহ অন্যান্য ছাত্র সংঠনের নেতাকর্মীরা মিছিল করেছে। এ ব্যাপারে ঢাবি ভিসি বলেন, ‘এটাও গণতান্ত্রিক একটি চর্চা। সবাই স্বাধীনভাবে মতামত জানাবে এটাই স্বাভাবিক।’
সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সরকার কোনোদিন যথাযথ ব্যবস্থা নেয়নিঃ ড. কামাল

সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সরকার কোনোদিন যথাযথ ব্যবস্থা নেয়নিঃ ড. কামাল

ফাইল ছবি
স্বদেশবার্তা ডেস্কঃ বিশিষ্ট আইনজীবী ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, সড়ক দুর্ঘটনা রোধে সরকার কোনোদিন যথাযথ ব্যবস্থা নেয়নি। এ জন্য এটা বাড়তে বাড়তে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। তিনি সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে সংসদে বিস্তারিত আলোচনার আহ্বান জানান।

তিনি আজ শনিবার বিকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘পরিবহন খাতে নৈরাজ্য বন্ধ - নিরাপদ সড়কের দাবিতে’ এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। দলের পক্ষ থেকে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

ড. কামাল আরো বলেন, সুশাসনের অভাবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সড়ক দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে পারছে না। আর এ জন্য আইন অমান্য করা দেশে মহামারি আকার ধারণ করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, মোস্তফা মহসিন মন্টু, মফিজুল ইসলাম খান কামাল, সুব্রত চৌধুরী, মোস্তাক আহমেদ, জগলুল হায়দার প্রমুখ।