Previous
Next

সর্বশেষ

21 February 2019

অর্ধেকের বেশি লাশ চেনার উপায় নেই

অর্ধেকের বেশি লাশ চেনার উপায় নেই


স্বদেশবার্তা ডেস্কঃ রাজধানীর চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় অর্ধেকের বেশি লাশ দেখে চেনার কোনো উপায় নেই। দেহগুলো এমনভাবে পুড়ে গেছে যে, ডিএনএ টেস্ট ছাড়া সনাক্ত করা সম্ভব নয়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ২২জনের লাশ সনাক্ত করে নিয়ে গেছেন তাদের স্বজনরা। সব মিলিয়ে ত্রিশ জনের লাশ দেখে চেনা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়কারী সামন্ত লাল সেন।

বিকাল পর্যন্ত ঢাকা মেডিক্যালে ৬৭ জনের মৃতদেহ এসেছে। তাছাড়া আরও তিনটি ব্যাগে লাশের খণ্ডিত অংশ আনা হয়। সব মিলিয়ে ৭০টির মতো লাশ মর্গে আছে বলে জানিয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্তরা। লাশের সন্ধানে হাজারো স্বজন ভিড় করছেন মর্গের আশপাশে। তাদের আহাজারিতে ভারী হয়ে উঠেছে পরিবেশ। অনেকেই স্বজনের ছবি নিয়ে সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের কাছে নিয়ে যাচ্ছেন; যদি লাশটি দ্রুত পাওয়া যায়- এই আশায়।

ডা: সামন্তলাল আজ সাংবাদিকদের বলেছেন, 'লাশগুলো এমনভাবে পুড়ে গেছে যে কঙ্কালের মতো হয়েছে। সে ক্ষেত্রে লাশগুলোর ডিএনএ পরীক্ষা করাতে হবে।'

অন্যদিকে ঢামেকের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ সাংবাদিকদের বলেন, 'অন্তত ৩০ জনের লাশ শনাক্ত করা সম্ভব হবে বলে মনে হচ্ছে। এক-তৃতীয়াংশ লাশই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এসব লাশ ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে শনাক্তের কাজ করতে হবে। পুলিশের নির্দেশ পেলে বাকি লাশগুলোর ময়নাতদন্তের কাজ করা হবে।'
মৃতদেহ হস্তান্তরই এখন বড় চ্যালেঞ্জঃ আইজিপি

মৃতদেহ হস্তান্তরই এখন বড় চ্যালেঞ্জঃ আইজিপি

ছবিঃ সংগৃহীত
স্বদেশবার্তা ডেস্কঃ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘পুরান ঢাকার চকবাজারে গতকাল রাতের অগ্নিকাণ্ডে যারা আহত হয়ে এখানে এসেছেন তাদেরকে দেখতে আমরা এসেছিলাম। আমরা দেখলাম ৯ জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছেন। এর মধ্যে তিনজন আইসিইউতে এবং ছয়জন বেডে আছেন।’

তিনি বলেন, ‘বিষয়টি খুবই মর্মান্তিক, যেটি কারোরই কাম্য হতে পারে না। সারারাত ধরে ফায়ার ব্রিগেড, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করেছে। স্থানীয় জনগণ সারারাত ধরে কাজ করেছেন। সবাই চেষ্টা করেছেন দ্রুত আগুন নেভানোর। যারা আহত তাদের হাসপাতালে হস্তান্তর করার জন্য।’

আইজিপি বলেন, ‘আমাদের কাছে চ্যালেঞ্জ যে কয়টি মরদেহ শনাক্ত করা সম্ভব হবে বা হয়েছে, সে কয়টিকে তাদের আত্মীয়-স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা। বিশেষ করে অগ্নিকাণ্ডে অগ্নিদগ্ধ মরদেহ শনাক্তকরণে বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ থাকে। কারণ এ সময় মুখের বা দেহের আকৃতি চেনা যায় না। পরিধেয় কোনো কিছু চেনা যায় না।’

মৃতদেহ ডিএনএ টেস্ট প্রসঙ্গে পুলিশের মহাপরিদর্শক বলেন, ‘যেটুকু শুনেছি যারা মারা গেছেন তারা অত্যন্ত ভয়ঙ্করভাবে পুড়ে গেছেন। তাদের এখন ডিএনএ টেস্ট করতে হবে। ডিএনএ টেস্ট করে নিকট আত্মীয়দের সঙ্গে ডিএনএ ম্যাচিং করতে হবে। যদি তাদের নিকটাত্মীয়দের শনাক্ত করা যায়, সেক্ষেত্রে নিখোঁজ মরদেহগুলো আত্মীয়-স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা যাবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের অফিসারদের কাছ থেকে যেটুকু পেয়েছি তার সংখ্যা কমবেশি হতে পারে, এখনো পর্যন্ত ৩৭ জনকে চিহ্নিত করা গেছে বলে আমি জানতে পেরেছি। এর মধ্যে ১২ জনকে তাদের আত্মীয়-স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এটুকু তথ্য আমি এখানে এসে জানতে পেরেছি।’

অগ্নিকাণ্ডে নিহতের সংখ্যা বিষয়ে মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘আমরা ফায়ার সার্ভিসের কাছ থেকে তথ্য নিয়ে আপডেট করছিলাম। আমি যেটুকু শুনেছি ঢাকা মেডিকেলের মর্গে ৬৭ মৃতদেহ আছে। ওখানে ধ্বংসাবশেষের নিচে যদি আর কোনো মৃতদেহ না থেকে থাকে তাহলে আমরা বলতে পারি মৃতের সংখ্যা ৬৭ জন। তবে আমি এটা নিশ্চয়তা দিতে পারছি না।’

নিখোঁজদের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘৬৭ জনের মধ্যে ৩৭ জন শনাক্ত হয়েছে। সুতরাং বাকিরা নিখোঁজ। শনাক্ত হওয়ার পরেই আপনি বলতে পারবেন আমি আমার আত্মীয়কে পেলাম। যতক্ষণ পর্যন্ত শনাক্ত না হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত তিনি নিখোঁজ।’

পুরান ঢাকার অলিগলিতে অবৈধ গোডাউনগুলো স্থানান্তর করতে সরকারের পক্ষ থেকে চেষ্টা করা হয়েছিল জানিয়ে পুলিশ মহাপরিদর্শক বলেন, ‘নিমতলার ঘটনার পরে সবাই মিলে আমরা চেষ্টা করেছিলাম পুরান ঢাকার অলিগলিতে অবৈধ যেসব গোডাউন আছে সেগুলো স্থানান্তর করার। সরকারের পক্ষ থেকে প্রচেষ্টা নেয়া হয়েছিল এবং আমার জানামতে কেরানীগঞ্জের ওইদিকে জমি নির্দিষ্ট করে দিয়ে এখান থেকে চলে যাওয়ার জন্য সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিল।’

‘বিষয়টি যেহেতু একটি সংস্থা দেখে না অনেকগুলো সংস্থা এর সঙ্গে সম্পৃক্ত। এখানে সিটি কর্পোরেশন আছে, যারা ব্যবসা করার লাইসেন্স দেয় তাদের বিষয় আছে। বিস্ফোরক অধিদফতেরর বিষয় আছে। পরিবেশ অধিদফতরের বিষয় আছে। পুলিশ, আইনশৃঙ্খলা কর্তৃপক্ষের বিষয় আছে। এখানে অনেকেই সম্পৃক্ত রয়েছে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় পুরান ঢাকার এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া উচিত’, বলেন জাবেদ পাটোয়ারী।

তিনি বলেন, ‘আমি যে টুকু শুনতে পেরেছি খুব শিগগিরই এ বিষয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক করে কর্মপন্থা ঠিক করা হবে যারা এখানে রয়ে গেছেন তাদেরকে অন্য কোথাও কিভাবে সরিয়ে নেয়া হবে সে বিষয়ে।’

প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়টি সারাক্ষণ খোঁজখবর রাখছেন জানিয়ে জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমার সঙ্গে (প্রধানমন্ত্রী) কয়েকবার কথা বলেছেন। এখানে রোগীরা কেমন আছেন সে বিষয়ে জানতে চেয়েছেন। সরকারের পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ করার জন্য উনি আমাদের সকলকে নির্দেশনা প্রদান করেছেন।’
চকবাজার অগ্নিকাণ্ড ঘটনায় বিএনপির দুই দিনের কর্মসূচি

চকবাজার অগ্নিকাণ্ড ঘটনায় বিএনপির দুই দিনের কর্মসূচি


স্বদেশবার্তা ডেস্কঃ রাজধানীর চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দুই দিনের কর্মসূচি দিয়েছে বিএনপি। আজ (বৃহস্পতিবার) দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কর্মসূচি জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বুধবার রাতে চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয়ে নিহতদের আত্মার মাগফেরাত ও আহতদের দ্রুত সুস্থতা কামনায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) উদ্যোগে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি (শুক্রবার) দেশব্যাপী সব মসজিদে বাদ জুম’আ বিশেষ মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

মোনাজাতে বিএনপির সব পর্যায়ের নেতাকর্মীকে অংশগ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।পরবর্তীদিনে (২৩ ফেব্রুয়ারি) নিহতদের স্মরণে বিএনপি শোক দিবস পালন করবে।

দিবসটি উপলক্ষে দেশব্যাপী বিএনপি নেতাকর্মীরা কালো ব্যাজ ধারণ করবে বলে জানানো হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে।
ভারতের প্রথম রোবট পুলিশ

ভারতের প্রথম রোবট পুলিশ


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ প্রথমবারের মতো রোবট পুলিশ নিয়োগ দিয়েছে ভারত। শুধুমাত্র একটি যন্ত্র বা কোনও সাধারণ রোবট নয় এটি। কারণ শুধু আকৃতিতেই নয় বরং কাজের ক্ষেত্রেও এই রোবটটি পুরোপুরিই একজন পুলিশের মতোই।

কেরালার পুলিশ বাহিনীতে নিয়োগ দেয়া এই রোবট পুলিশের নাম রাখা হয়েছে কেপি-বট। কেরালা পুলিশ ডিপার্টমেন্টের টেকনোলজিক্যাল রিসার্চ এবং ডেভেলপমেন্ট সেন্টার অর্থাৎ কেরালা পুলিশ সাইবারডোম এই রোবটটি বানিয়েছে।

কী কাজ করবে এই রোবট? অনেকের মনেই এমন প্রশ্ন এসেছে। পুলিশের প্রায় সব ধরনের অফিসিয়াল কাজকর্ম একাই করতে পারবে এই রোবট।

কাউকে গাইড করা, রিসেপশনে কে ঢুকছে, কে বেরিয়ে যাচ্ছে, তাদের নাম এন্ট্রি করা, পুলিশ কর্মকর্তাদের অ্যাপয়নমেন্ট ঠিক করা। এসব কাজ একাই সামলাবে কেপি-বট। এমনকি কেপি-বটের মুখে ফেসিয়াল রিকগনিশন ক্যামেরাও লাগানো রয়েছে। যা মুখের ছবি তুলে রাখতে সক্ষম।

কেরালা পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, কেপি-বটের প্রযুক্তি আরও উন্নত করা হবে। তার ফলে দুষ্কৃতকারীদের চিনে রেখে তাদের থানায় ঢোকা থেকে আটকাতেও সক্ষম হবে এই রোবট পুলিশ।

দেশের প্রথম এই রোবট পুলিশের উদ্বোধন করেছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। সে সময় এক পুলিশ কর্মকর্তা মজা করে কেপি-বটকে বলেন, আমি কি তোমায় ঘুষ দেব? কেপি-বট ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে জবাব দিয়েছে, তার ছবি এবং কথা রেকর্ড করা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
ইসরাইলের দুঃসাহসের জন্য সামরিক সংঘাত শুরু হতে পারেঃ ইরান

ইসরাইলের দুঃসাহসের জন্য সামরিক সংঘাত শুরু হতে পারেঃ ইরান


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মুহম্মদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল সিরিয়ায় যে সামরিক হামলা চালিয়ে বিপজ্জনক দুঃসাহস দেখাচ্ছে এবং এজন্য গোটা মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক সংঘাত শুরু হতে পারে

সুইডয়েশ জেইতুং পত্রিকাকে গতকাল (বুধবার) দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, “ইসরাইলের পক্ষ থেকে দুঃসাহস দেখানো হচ্ছে এবং দুঃসাহস সবসময় বিপজ্জনক।” জাওয়াদ জারিফ আরো বলেন, সিরিয়া সরকারের আমন্ত্রণে ইরান  সেখানে সামিরক উপদেষ্টা পাঠিয়েছে, কিন্তু ইহুদিবাদী ইসরাইল মাঝেমধ্যেই লেবানন ও সিরিয়ার আকাশসীমা এবং আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করছে।

ইরান ও ইসরাইলের মধ্যে সামরিক সংঘাতের বিষয়ে জানতে চাইলে জাওয়াদ জারিফ বলেন, “আমি মনে করি না এটা হতে যাচ্ছে, তবে আমরা সাম্ভাবনা একদম নাকচও করছি না।”

এর আগে, জার্মানির মিউনিখ শহরে অনুষ্ঠিত নিরাপত্তা সম্মেলনে জারিফ বলেছেন, ইসরাইল যুদ্ধ শুরুর চেষ্টা করছে এবং ইসরাইল ও আমেরিকার তৎপরতার কারণে মধ্যপ্রাচ্যে সামরিক সংঘাতের আশংকা জোরদার হচ্ছে। সে সময় তিনি আরো বলেছিলেন, ইরানে হামলা করলে তা হবে আত্মঘাতী।