Previous
Next

সর্বশেষ

21 September 2018

এবার গরুকে ভাষা শেখাবেন ভারতীয় ধর্মগুরু

এবার গরুকে ভাষা শেখাবেন ভারতীয় ধর্মগুরু


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ স্বঘোষিত ধর্মগুরু স্বামী নিত্যানন্দ বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের জন্য প্রায়ই শিরোনাম হন। এর আগে যৌন কেলেঙ্কারির কারণে আলোচনায় এসেছিলেন তিনি। আবারও আলোচনায় এলেন। এবার আলোচিত হয়েছেন অবশ্য অদ্ভুত এক কারণে। তার দাবি, যদি তিনি প্রশিক্ষণ দেন তাহলে গরু, কাক ও অন্য প্রাণীরা সংস্কৃত ভাষায় কথা বলতে পারবে।

স্বামী নিত্যানন্দ কথায় তিনি গরুকে তামিল ও সংস্কৃত এই দুই ভাষাই শেখাতে পারবেন। কিন্তু কী করে তিনি গরুকে কথা বলাতে এবং ভাষা শেখাতে সফল হবেন? তার দাবি, অতিপ্রাকৃতিক উপায়ে এই প্রাণীদের কথা শেখানো যেতে পারে।

দক্ষিণ ভারতের এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর দাবি গরুর বিরল ক্ষমতা আছে। ডাক্তারি পরীক্ষার মাধ্যমে গরুর গলায় কিছু পরিবর্তন আনলেই তারা নাকি গরু সংস্কৃত ভাষায় কথা বলতে পারবে। আর এ নিয়ে তিনি নাকি রীতিমতো গবেষণাও শুরু করেছেন।
বাজারে আসছে গোবরের সাবান

বাজারে আসছে গোবরের সাবান


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ সোডিয়াম হাইড্রক্সাইড নয় এবার বাজারে আসছে গোবরের সাবান। বিষয়টি কিছুটা হতবাক হওয়ার মত হলেও সত্যি। সম্প্রতি এমন তথ্য জানালেন এক স্বয়ংসেবক প্রভাবিত সংস্থা। অনলাইনে প্রাকৃতিক উপায়ে ওষুধ বিক্রির পাশাপাশি গোবর, গোমূত্র বিক্রি শুরু করেছিল বাবা রামদেবের সংস্থা পতঞ্জলী।

এবার তারই দেখানো পথে হাঁটা শুরু করেছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক প্রভাবিত সংস্থা। এবার অনলাইনে এই গোমূত্রের তৈরি সাবান, শ্যাম্পুসহ প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি নানা প্রসাধনী বিক্রি করতে বাজারে নামছে সংস্থাটি। মথুরার দীনদয়াল ধাম নামে আরএসএসের যে কেন্দ্রটি রয়েছে, সেখানে প্রসাধনী থেকে শুরু করে পোশাক, এমনকি ওষুধও তৈরি হচ্ছে।

ধামের প্রধান রাজেন্দ্র জানান, চাহিদার কথা মাথায় রেখেই এগুলো তৈরি করা হচ্ছে। তবে তার আশা, গোমূত্রের তৈরি জিনিসের চাহিদাই সবচেয়ে বেশি হবে। যে জিনিসগুলো বিক্রি করা হবে, তার দামও খুব একটা বেশি নয় বলে জানিয়েছেন তিনি। ১০ টাকা থেকে ২৩০ টাকা দামের জিনিস পাওয়া যাবে। আর বিক্রির মাধ্যম হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে অনলাইন বিপণন সংস্থা অ্যামাজনকে।
তিন পুলিশ সদস্যকে অপহরণের পর হত্যা!

তিন পুলিশ সদস্যকে অপহরণের পর হত্যা!


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ পুলিশের তিন সদস্যকে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে সন্দেভাজন জঙ্গিরা অপহরণ করে বলে অভিযোগ ওঠে। ভারত শাসিত কাশ্মীরের গ্রীষ্মকালীন রাজধানী শ্রীনগর থেকে প্রায় ৫২ কিলোমিটার দূরে শোপিয়ান জেলা থেকে তাদের অপহরণ করা হয়।

আজ শুক্রবার সকালে দক্ষিণ কাশ্মীর থেকে ওই তিন পুলিশ কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক খবরে বলা হয়, কাশ্মিরের কাপ্রান গ্রামে চারজন পুলিশের বাড়িতে ঢুকে জঙ্গিরা তাদের অপহরণ করে। তবে গ্রামবাসীদের কারণে জঙ্গিরা একজন পুলিশ সদস্যকে নিয়ে যেতে পারেনি।

স্থানীয় পুলিশ বলছে, জঙ্গিরা ওই পুলিশ সদস্যদের আগে থেকেই বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল। দ্রুত পুলিশের চাকরি ছেড়ে না দিলে তাদের মেরে ফেলার কথাও বলা হয়েছিল। এর কয়েক দিনের মাথায় ওই পুলিশ সদস্যদের গ্রামের কাছেই শোপিয়ানে তাদের তিনজনের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়।

ওই ‍তিন পুলিশ সদস্যের লাশ উদ্ধারের কিছুক্ষণ পরেই জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে তিনি বলেন, ‘যেভাবে একের পর এক পুলিশকর্মী ও তাদের পরিবারের সদস্যদের অপহরণ ও হত্যার ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে, তাতে এ কথা স্পষ্ট যে কেন্দ্রের নীতি কোনো কাজেই আসছে না। আবার তিনজন পুলিশকর্মী প্রাণ হারালেন জঙ্গিদের গুলিতে। আমরা এখন যতই শোকপ্রকাশ করি না কেন, এটা তাদের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য যথেষ্ট নয়।’

এর আগে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা এনডিটিভিকে জানান, জঙ্গিরা এই মুহূর্তে প্রবল চাপে আছে। তেমন বড় কিছুই করতে পারছে না তারা। এ কারণেই জঙ্গিরা নিজেদের হতাশা থেকে সাধারণ পুলিশ সদস্যদের অপহরণ ও খুন করে।  
যুক্তরাষ্ট্রে নারী বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ৩

যুক্তরাষ্ট্রে নারী বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ৩


আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ যুক্তরাষ্ট্রে ফের বন্দুকধারীর হামলা৷ ঘটনাস্থল ম্যারিল্যান্ডের রাইট এইড ডিস্ট্রিবিউশন সেন্টার৷ জানা গেছে, স্থানীয় সময়ানুসারে বৃহস্পতিবার ভোরে সেখানে এক নারী বন্দুকধারীর হামলায় ৩ জন নিহত হয়েছে। এই ঘটনায় আহত হয়েছে আরও ৩ জন৷

এদিকে, ২৬ বছর বয়সী সেই নারী বন্দুকধারীর নিজের মাথায় গুলি করে আত্মহত্যা করে৷ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে চিকিৎসকেরা৷ তবে কী কারণে ওই নারী নির্বিচারে এভাবে গুলি করে মানুষ হত্যা করলো তার কারণ এখনও জানতে পারেনি পুলিশ।

সূত্রের খবর, এই হামলায় দুজন ঘটনাস্থলেই মারা যায়। অপর আরেকজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সে সেখানে মারা যায়৷ ঘটনায় আরও তিনজন আহত হয়। তাদের চিকিৎসা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷

তবে যাদের লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়েছে, তাদের সঙ্গে সেই নারী বন্দুকধারীর কি সম্পর্ক তা এখনও স্পষ্ট নয়৷ কেন আচমকা এই হামলা করল সেই নারী তার অনুসন্ধান চলছে৷
খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে স্বজনরা

খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে স্বজনরা


স্বদেশবার্তা ডেস্কঃ বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে পরিবারের সদস্যরা কারাগারে ভেতরে প্রবেশ করেছেন।

আজ শুক্রবার বিকেল ৪টা ৪২ মিনিটে  খালেদা জিয়ার পরিবারের পাঁচ সদস্য পুরান ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রবেশ করেন।

স্বজনদের মধ্যে রয়েছেন- খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দার, ভাবী কানিজ ফাতেমা, ভাইপো অভিক ইস্কান্দার, অনিক ইস্কান্দার, বোন সেলিমা ইসলাম, ভাগ্নে ডা. মোহাম্মদ আল মামুন।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের সাজা হয়। এর পর থেকে তিনি কারাগারে আছেন।